ব্রেকিং:
১২সেপ্টেম্বর থেকে পর্যটনস্পট নিলগিরি জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করে দিবে কর্তৃপক্ষ। প্রতিশ্রুতি পূরণে আওয়ামী লীগ নেতাদের দায়িত্বশীল হতে হবে:শেখ হাসিনা শেখ হাসিনার সরকার মানুষকে শুধু স্বপ্ন দেখায় না,স্বপ্নকে বাস্তবায়ন:বীর বাহাদুর ইউএনও ওয়াহিদার সর্বোচ্চ চিকিৎসার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর আগস্টেও চমক রপ্তানি আয়ে ২০ পণ্যে ইতিবাচক প্রবৃদ্ধি সমন্বিতভাবে কাজ করায় এ বছর ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে : এলজিআরডি মন্ত্রী করোনার প্রভাবে দেশে খাদ্য সংকট হবে না : কৃষিমন্ত্রী সব ভূমিসেবা এক ছাদের নিচে আসছে শহরেও বাড়ছে সৌর বিদ্যুতের ব্যবহার করোনার মধ্যেও দ্রুত ঘুরে দাঁড়াতে সক্ষম হবো :অর্থমন্ত্রী সৌদিতে প্রবেশের অনুমতি পেল বাংলাদেশসহ ২৫ দেশ অপরাধী যেই হোক, আইনের আওতায় আনা হবে: কাদের হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক বিচার করা হবে : নৌ প্রতিমন্ত্রী চীনের চেয়েও বাংলাদেশের ব্রডব্যান্ড গতিশীল! বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের নেটওয়ার্কে আসছে সাগরে মাছ
  • মঙ্গলবার   ০১ ডিসেম্বর ২০২০ ||

  • অগ্রহায়ণ ১৭ ১৪২৭

  • || ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২

দৈনিক বান্দরবান
সর্বশেষ:
বান্দরবানে তহজিংডং এর কর্মশালা অনুষ্ঠিত বান্দরবান বন বিভাগের উদ্যোগে বি‌ভিন্ন শিক্ষা প্র‌তিষ্ঠা‌নে চারা বিতরণ সব দেশের সঙ্গে বাংলাদেশও ভ্যাকসিন পাবে শিক্ষার্থীদের অটো প্রমোশনের ইঙ্গিত দিলেন প্রধানমন্ত্রী ২১ শে আগস্ট ও বিএনপির ঐতিহাসিক বিচারহীনতার চরিত্র জরিপ অধিদপ্তরে `বঙ্গবন্ধু কর্নার` দেশে চীনের করোনা ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি দিল সরকার ডাইনামিক নেতৃত্ব দিয়ে চলেছেন শেখ হাসিনা মোশতাক-জিয়া চক্র জাতির বিবেককে কারারুদ্ধ করে রেখেছিল ॥ কাদের প্রধানমন্ত্রীর ৩১ উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়ন আজ বাংলাদেশের সঙ্গে বাণিজ্য বৃদ্ধির আগ্রহ যুক্তরাষ্ট্রের কুশীলবদের চিহ্নিত করতে কমিশন হচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর পররাষ্ট্রনীতিতেই রোহিঙ্গারা ফিরে যাবে সংশোধন হচ্ছে জাতীয় শিক্ষানীতি কাজ করছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও গ্যাভি, বাংলাদেশ তিন কোটি ৪০ লাখ ভ্যাকসিন পাবে যুদ্ধবিধ্বস্ত স্বাধীন দেশের শিক্ষাব্যবস্থায় এক শিল্পীর ছোঁয়া ছয় দফা ছিল বঙ্গবন্ধুর একান্ত চিন্তার ফসল খুনিদের আশ্রয়-প্রশ্রয় দেওয়ায় বেগম জিয়াও অপরাধী : তথ্যমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর আদর্শের পথ ধরেই দেশকে এগিয়ে নিতে চাই : প্রধানমন্ত্রী খালেদা নয়, তারেকের অবসর চায় বিএনপি মিয়ানমারের কূটনীতিককে কড়া জবাব দিলো বাংলাদেশ দেড় হাজার সাংবাদিক ১০ হাজার টাকা করে অনুদান পাবেন: তথ্যমন্ত্রী সরকারি চাকরিজীবীদের জন্য টেলিমেডিসিন সেবা চালু সারাদেশে ৮ হাজার শেখ রাসেল কম্পিউটার ল্যাব গড়ে তোলা হয়েছে:পলক রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আইসোলেশন ও ট্রিটমেন্ট সেন্টার চালু জুলাইয়ে চীনের করোনার টিকার তৃতীয় পর্যায়ের পরীক্ষা বাংলাদেশে হতে পারে শীর্ষেন্দুকে আশ্বস্ত করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী ‘স্বপ্ন সত্যি হলে এর চেয়ে আনন্দ আর কী’ যুক্তরাষ্ট্রের ‘গ্রেট প্লেস অ্যাওয়ার্ড’ পেল হাতিরঝিল প্রকল্প লন্ডনে বঙ্গবন্ধুর ৭ মাচের্র ঐতিহাসিক ভাষণ তিনটি ভাষায় অনুবাদের উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ হাই কমিশন। ভাষা তিনটি হচ্ছে—ওয়েলস, স্কটিশ ও আইরিশ। হাইকমিশনের পক্ষ থেকে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে মঙ্গলবার (১০ মার্চ) এ কথা জানানো হয়। বঙ্গবন্ধু জাতীয় ফুটবল চ্যাম্পিয়নশীপে বান্দরবান-নোয়াখালীর ম্যাচ ড্র নিজের ইচ্ছেমতো আর নয়, চিকিৎসকদের রোগী দেখার ফি নির্ধারণ করে দেবে সরকার........স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক আকাশ থেকে পদ্মাসেতুর ছবি তুললেন প্রধানমন্ত্রী পাহাড়ে সন্ত্রাস চাঁদাবাজি বন্ধে জিরো টলারেন্স দেখানো হবে:পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি বীর বাহাদুরের আর্দশে অনুপ্রাণিত হয়ে বিএনপি ছেড়ে আওয়ামীলীগে যোগ দিল সোনাইছড়ির অর্ধ শতাধিক বিএনপি নেতাকর্মী বান্দরবানে গাছ কাটতে গিয়ে বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে একজনের মৃত্যু: বান্দরবানে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্ণামেন্ট ১৮ এবং বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেসা মুজিব গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্ণামেন্ট প্রতিযোগিতার সমাপনী পার্বত্য জেলা বান্দরবান ৩০০ নং আসনে ৩ জন এমপি প্রার্থী আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৬ষ্ঠ বারের মত বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের মনোনীত সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী বীর বাহাদুর উশৈসিং কে পুনরায় নির্বাচিত করে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখার লক্ষ্যে বান্দরবান শহর শাখার ৪নং ওয়ার্ড পশ্চিম শাখা স্বেচ্ছাসেবক লীগ এর আয়োজনে বিশাল কর্মী সমাবেশ অনুষ্ঠিত শেখ হাসিনার সকারের সফলতায় বান্দরবানের রুমাতে পৌঁছে গেল নতুন বছরের নতুন বই বান্দরবানে নির্বাচনে মহাজোটেরমধ্যে আ:লীগ’র প্রার্থী থাকলে ও নেই জাপা আপীলে বৈধতা পেলেন বান্দরবানের বিএনপির মাম্যাচিং পার্বত্য এলাকার উন্নয়ন, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও পাহাড়ের স্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য নৌকা প্রতীকে ভোট দিতে হবে.............. বীর বাহাদুর উশৈসিং
২৭৫

শবে কদরের নামাজের নিয়ম ও দোয়া

দৈনিক বান্দরবান

প্রকাশিত: ২০ মে ২০২০  

মহিমান্বিত শব-ই-কদরের রাতকে মহান আল্লাহ তায়ালা রমজানের শেষ দশকের বেজোড় রাতে লুকিয়ে রেখেছেন। বান্দাহ বিনিদ্র রজনী কাটাবে, সবর করবে। আর এর মধ্যে খুঁজে পাবে সম্মানিত রাত, আল্লাহর রহমত ও মাগফিরাত। এছাড়াও এ রাতে ফেরেশতার অদৃশ্য মোলাকাতে সিক্ত হবে ইবাদতকারীর হৃদয়। আপন রবের ভালোবাসায় হবে সে উদ্বেলিত। এ যেন দীর্ঘ বিরহের পর আপনজনকে ফিরে পাওয়ার আনন্দ। তাই এ তাৎপর্যপূর্ণ রাতকে আমাদেরকে নামাজসহ বিভিন্ন ইবাদতের মধ্যে কাঁটিয়ে দিতে হবে।

ন্যূনতম আট রাকাত থেকে যতো সম্ভব পড়া যেতে পারে। এ জন্য সাধারণ সুন্নতের নিয়মে ‘দুই রাকাত নফল পড়ছি’ এ নিয়তে নামাজ শুরু করে শেষ করতে হবে। এ জন্য সূরা ফাতেহার সাথে আপনার জানা যেকোনো সূরা মিলিয়ে পড়লেই চলবে। কিছু ব্যতিক্রম নিয়মে সূরা ফাতেহার সঙ্গে ৩৩ বার সূরা আল কদর, ৩৩ বার ইখলাস পড়লেও অসুবিধার কারণ নেই।

 

হাদিস শরীফে বর্ণিত আছে, হযরত রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি ৪ রাকয়াত নামাজ কদরের রাতে আদায় করবে এবং উক্ত নামাজের প্রতি রাকয়াতে সূরা ফাতিহার পরে ২১ বার করে সূরা ইখলাছ পাঠ করবে আল্লাহ তায়ালা ওই ব্যক্তিকে সদ্য ভূমিষ্ঠ শিশুর ন্যায় নিষ্পাপ করে দেবেন এবং বেহেশতের মধ্যে এক মনোমুগ্ধকর মহল তৈরি করে দেবেন।’

অপর এক হাদিসে বর্ণিত রয়েছে, হযরত রাসূল (সা.) এরশাদ করেছেন, ‘যে ব্যক্তি কদরের রজনীতে ৪ রাকয়াত নামাজ আদায় করবে এবং উহার প্রতি রাকয়াতে সূরা ফাতিহার পরে সূরা ক্বদর ও সূরা ইখলাছ তিনবার করে পাঠ করবে, নামাজ শেষে সিজদায় গিয়ে নিম্নের দোয়াটি কিছু সময় পাঠ করে আল্লাহর দরবারে যাই প্রার্থনা করবে তিনি তাই কবুল করবেন এবং তার প্রতি অসংখ্য রহমত বর্ষিত করবেন।’

শবে কদরের দোয়া: ‘আল্লাহুম্মা ইন্নাকা আফুউন, তুহিব্বুল আফওয়া, ফাফু আন্নি।’ অর্থাৎ ‘হে আল্লাহ! আপনি ক্ষমাশীল, ক্ষমা করতে ভালোবাসেন, তাই আমাকে ক্ষমা করে দিন।’ জিকির ও দোয়া: হাদিসে যে দোয়া ও জিকিরের অধিক ফজিলতের কথা বলা হয়েছে সেগুলো থেকে কয়েকটি নির্বাচিত করে অর্থ বুঝে বারবার পড়া যেতে পারে। ইস্তেগফার ও দরুদ আল্লাহর কাছে খুবই প্রিয়। কমপক্ষে ১০০ বার ইস্তেগফার ও ১০০ বার দরুদ পড়া যেতে পারে।

কদরের নামাজের নিয়ত: নাওয়াইতু আন উছাল্লিয়া লিল্লাহি তায়া’লা রাকআ’তাই ছালাতি লাইলাতিল ক্বাদরি, মুতাওয়াজ্জিহান ইলা জিহাতিল কা’বাতিশ শারীফাতি আল্লাহু আকবার। জিকির ও দোয়া: হাদিসে যে দোয়া ও জিকিরের অধিক ফজিলতের কথা বলা হয়েছে সেগুলো থেকে কয়েকটি নির্বাচিত করে অর্থ বুঝে বারবার পড়া যেতে পারে। ইস্তেগফার (মা প্রার্থনা) ও দরুদ আল্লাহর কাছে খুবই প্রিয়। কমপক্ষে ১০০ বার ইস্তেগফার ও ১০০ বার দরুদ পড়া যেতে পারে।

দৈনিক বান্দরবান
দৈনিক বান্দরবান
ধর্ম বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর